Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home » ইসলামের আলো » পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের শারীরিক উপকারিতা

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের শারীরিক উপকারিতা

আমরা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করি ঠিকই কিন্তু পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের শারীরিক উপকারিতা কিংবা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে কিছুই জানি না।

নামাজের বৈজ্ঞানিক উপকারিতা এবং নামাজের মানসিক উপকারিতাগুলো জেনে রাখলে আর কিছু না হোক যুক্তি দিয়ে মানুষকে নামাজের দিকে আহবান করা যাবে।

ইসলামের পাঁচটি খুঁটি বা স্তম্ভের সর্বপ্রথম স্তম্ভটি হচ্ছে সালাত বা নামাজ। মহান আল্লাহ তায়ালা প্রত্যেক মুসলিম নর নারীর উপর নামাজ পড়া ফরজ করে দিয়েছেন।

বিজ্ঞানীরা নামাজের উপকারিতা নিয়ে অনেক গবেষণা করেছেন। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের বৈজ্ঞানিক উপকারিতা নিয়ে আজকের লেখা।

প্রতিটি মানুষের সুস্থতার জন্য নিয়মিত শরীর চর্চার প্রয়োজন। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতে মসজিদে যেতে হয় নিদৃষ্ট নিয়মে উঠা বসা করতে হয়।

বিজ্ঞানীদের মতে নিয়মিত নামাজ আদায় করলে স্বাস্থ্যগত অনেক উপকারিতা রয়েছে, নামাজের উপকারিতা আছে যা আগে কখনো কেউ কল্পনাও করেনি।

আজকে আমরা জানবো, পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের উপকারিতা বা নামাজের শারীরিক উপকারিতা কিংবা বলা যেতে পারে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের বৈজ্ঞানিক উপকারিতা।

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের শারীরিক উপকারিতা ও নামাজের মানসিক উপকারিতা, physical benefits of prayer

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের শারীরিক উপকারিতা

১. ফজরের নামাজ

ফজরের নামাজের উপকারিতা অনেক রয়েছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানের মতে, সারা রাত ঘুমানোর পরে ফজরের নামাজ মসজিদে গিয়ে আদায় করলে হালকা কিছু শরীরচর্চা হয়ে যায়। ঘুম থেকে উঠলে পেট একেবারেই খালি থাকে, আর খালি পেটে যদি কেউ কঠিন শরীরচর্চা করে তাহলে তা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

ফজরের সময় ভোরের আবহাওয়া অনেকটা ফ্রেশ থাকে, এই ফ্রেশ বাতাস মস্তিষ্কের জন্য বেশ উপকারী। ফজরের নামাজের সময় ঘুম থেকে উঠে প্রসাব পায়খানা করলে তা কিডনির জন্য ভালো। এছাড়াও ভোরে ওযু করার মাধ্যমে পরিষ্কার থাকা যায়। ফলে বিভিন্ন ধরণের জীবাণু হতে পরিত্রাণ পাওয়া যায়।

আমরা জানি, সকাল সকাল ঘুমাতে যাওয়া এবং ভোরে ঘুম থেকে উঠা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। ফজরের নামাজ আদায় করলে তারাতারি ঘুমাতে হয় এবং ভোরে ঘুম থেকে উঠতে হয়। ফজরের নামাজের উপকারিতা এর থেকে উত্তম আর কি হতে পারে?

২. জোহরের নামাজ

জোহরের নামাজের উপকারিতা সম্পর্কে আমরা অনেকেই তেমন কিছুই জানি না। এমন কিছু উপকারিতা আছে যা জানলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন।

জীবিকা নির্বাহের জন্য আমরা অনেকেই অনেক ধরণের কাজ করে থাকি। ফলে নানা ধরণের ময়লা, ধুলো বালি, কিংবা বিষাক্ত কোন কিছু আমাদের শরীরে বা হাতে লেগে থাকে। যা স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারণ হতে পারে। জোহরের নামাজের উদ্দেশ্যে ওযু করলে এ সবকিছু দূর হয়ে যায় পাশাপাশি শরীরের ক্লান্তিও দূর হয়ে যায়।

দুপুরের পর সূর্য ঢলে পড়ার সময় এক প্রকার গ্যাস বের হয়, এই গ্যাস  মানুষের মস্তিস্কে বিরূপ প্রভাব ফেলে। তাই ওযু করে নামাজ আদায় করলে এই বিষাক্ত গ্যাসের ক্ষতিকর প্রভাব হতে রক্ষা পাওয়া যায়। যার ফলে বিভিন্ন রোগ বালাই হতে রক্ষা পাওয়া যায়।

নামাজের স্বাস্থ্য উপকারিতা যোহরের নামাজেও রয়েছে। তাই কোনভাবেই নামাজ ত্যাগ করা উচিৎ নয়।

৩. আসরের নামাজ

আছরের নামাজের শারীরিক উপকারিতা কি আছে তা নিয়ে বিজ্ঞানীরা অনেক গবেষণা করেছেন। এ নামাজের উপকারিতা সম্পর্কে এমন কিছু তথ্য বিজ্ঞানীরা বের করেছেন যা আসলেই অবাক করার মতো।

বিজ্ঞানীদের মতে পৃথিবী দুই প্রকার গতিতে ঘুরে থাকে। সূর্য যখন উদয় হয় তখন এক ধরণের ঘূর্ণন গতি থাকে, এবং সূর্য যখন ঢলে পরে তখন এক ধরণের ঘূর্ণন গতি কাজ করে। আসরের সময় থেকে রাত খুব তারাতারি চলে আসে। ফলে রাতের অনুভূতি প্রবল আকার ধারণ করে এবং অবসাদগ্রস্ততা বৃদ্ধি পায়।

এই অবসাদগ্রস্ততা মানুষের মস্তিষ্কের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। এই প্রভাব হতে মুক্তি পেতে আসরের নামাজের কোন বিকল্প নেই এবং মনের ভিতর এক ধরণের প্রশান্তি চলে আসে।

এছাড়াও আমাদের নবী (সাঃ) আসরের নামাজের উপকারিতা নিয়ে একটি হাদিসে বলেছেন, আসরের নামাজ আদায় করলে শরীরের ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়। যেটাকে আমরা নূরানি চেহারা বলে থাকি। বিজ্ঞানীরা বলে থাকেন, নামাজের মানসিক উপকারিতা রয়েছে, আসরের নামাজ নিয়মিত আদায় করলে মানসিকভাবে সুস্থ থাকা সম্ভব।

৪. মাগরিবের নামাজ

অন্যান্য ওয়াক্তের নামাজের মতো বিজ্ঞানীরা মাগরিবের নামাজের উপকারিতা খুঁজে পেয়েছেন। মাগরিবের নামাজের বৈজ্ঞানিক উপকারিতা অনেক রয়েছে।

প্রতিটি মানুষ সারাদিন অনেক কাজ কর্ম করে থাকে ফলে অনেক ক্লান্তিতে থাকে। ঠিক ঐ সময়ে একটু ফ্রেশমেন্ট এর খুবই প্রয়োজন। তাই মাগরিবের সময় ওযু করে মাগরিবের নামাজ আদায় করলে মন ভাল থাকে এবং শরীরে প্রশান্তি চলে আসে।

৫. এশার নামাজ

অনেক গবেষণা করে চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা এশার নামাজের উপকারিতা খুঁজে পেয়েছেন। আসুন যে জেনে নেই এশার নামাজের বৈজ্ঞানিক উপকারিতা।

অনেকেই সারাদিন কাজ করে রাতের বেলায় বাসায় ফিরে থাকে আর বাসায় ফিরেই রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। কিন্তু চিকিৎসা বিজ্ঞানের মতে রাতে খাবার খাওয়ার সাথে সাথে ঘুমিয়ে পরলে শরীরে অনেক রোগ বাসা বাঁধতে পারে। তাই রাতে খাওয়ার পর হালকা ব্যায়াম করার পর ঘুমাতে যাওয়া উচিৎ।

আর নামাজের থেকে উত্তম ব্যায়াম আর কি হতে পারে। তাই এশার নামাজের আগে রাতের খাবার খেয়ে তারপর এশার নামাজ আদায় করলে বিভিন্ন রোগ হতে মুক্তি পাওয়া যায়।

এছাড়াও এশার নামাজ আদায় করলে মানসিকভাবে শরীরকে ঘুমের জন্য প্রস্তুত করা যায়, এটাই হল এশার নামাজের মানসিক উপকারিতা।

৬. তাহাজ্জুদের নামাজ

আমরা অনেকেই তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করে থাকি। কিন্তু অনেকেই জানি না এই নামাজের শারীরিক উপকারিতা রয়েছে।

ইসলামে তাহাজ্জুদের নামাজের উপকারিতা এবং ফজিলতের কথা অনেক জায়গায় বর্ণনা করা হয়েছে। বিজ্ঞানীরাও তাহাজ্জুদের নামাজের বৈজ্ঞানিক উপকারিতা সম্পর্কে বলেছেন।

চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা বলেন, তাহাজ্জুদের নামাজ মানুষের স্নায়ু রোগ, হৃদরোগ, নিদ্রাহীনতা, অস্বস্তি ইত্যাদি থেকে মুক্তি দিতে পারে।

এছাড়াও যারা দূরের জিনিস দেখতে পান না তারা তাহাজ্জুদের নামাজ নিয়মিত আদায় করলে উপকার পাবেন। যাদের স্নায়ু দুর্বল তারা যদি প্রতিদিন তাহাজ্জুদের নামাজ আদায় করেন তাহলে তাদের এ রোগ থেকে মুক্তি মিলবে বলে মনে করেন চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা।

৭. অন্যায় ও খারাপ কাজ থেকে বিরত রাখে

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের উপকারিতা গুলোর মধ্যে প্রধান উপকারিতা হল, নামাজ মানুষকে খারাপ কাজ করা থেকে রক্ষা করে।

মহান আল্লাহ তায়ালা প্রত্যেক মুসলমানের উপর ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা এবং প্রতিষ্ঠা করা ফরজ করে দিয়েছেন। মহান আল্লাহ তায়ালা বলেছেন,

“নিশ্চয়ই সালাত অশ্লীল ও খারাপ কাজ হতে বিরত রাখে”

নিয়মিত ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করলে জীবনে নানা ধরণের খারাপ ও অশ্লীল কাজ হতে মুক্তি পাওয়া যায়। মনে আল্লাহভীতি বৃদ্ধি পায়।

৮. সমাজে ঐক্য এবং সমতা নিয়ে আসে

মানুষে মানুষে যত ভেদাভেদ আছে তা দূর করে দিতে পারে নামাজ। সমাজে ধনী-গরীবের মাঝে নিয়ে আসে সমতা। আর যখন সমাজে সমতা ফিরে আসে তখন গড়ে উঠে সীসা ঢালা প্রাচীরের ন্যায় মজবুত ঐক্য।

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের উপকারিতার মধ্যে সমাজে ঐক্য এবং সমতা প্রতিষ্ঠা করে নামাজ।

৯. সময় সচেতনতা এবং দায়িত্ববোধ জাগ্রত করে

প্রতি ওয়াক্ত নামাজ আদায়ের সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। এজন্য যারা ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করে তাদের সময় সচেতনতা অনেক বেশি এবং পাশাপাশি দায়িত্ব সম্পর্কেও সচেতন হয়।

১০. আনুগত্যবোধ এবং নেতৃত্ববোধ জাগ্রত করে

মহান আল্লাহ তায়ালা জামায়াতের সাথে নামাজ আদায় করার উপর নির্দেশ দিয়েছেন। জামায়াতের সহিত নামাজ আদায়ের ব্যপারে অনেক হাদিস রয়েছে। জামায়াতের সাথে নামাজ আদায় করলে ইমামের মাঝে নেতৃত্ববোধ এবং মুছল্লির মাঝে আনুগত্যবোধ জাগ্রত হয়। যা একটি সমাজের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

১১. সাহায্য সহযোগিতা করার মানসিকতা তৈরি হয়

নামাজ আদায় করার জন্য আমাদের মসজিদ নির্মাণ করতে হয় এবং মসজিদ দেখাশুনা করতে হয় এতে করে সমাজের প্রতি প্রত্যেক মানুষের সাহায্য করার মানসিকতা তৈরি হয়।

১২. নিষ্ঠাবান হওয়া যায়

৫ ওয়াক্ত নামাজের উপকারিতা গুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে, নিয়মিত ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করলে মানুষ নিষ্ঠাবান হয়ে উঠে। এবং মানুষের মাঝে একাগ্রতা সৃষ্টি হয়।

১৩. চরিত্র উন্নত করে

প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করার মাধ্যমে মানুষের খারাপ অভ্যাসগুলো এবং খারাপ কাজগুলো দূর হয়ে যায় এবং ভালো কাজের প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধি হয় যা একজন মানুষের চরিত্রকে উন্নত করতে সাহায্য করে। উন্নত চরিত্র গঠনে সহায়তা করা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের উপকারিতা গুলোর মধ্যে একটি।

১৪. নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়

প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করলে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করা শেখা যায়। নামাজের নির্ধারিত সময় রয়েছে, এবং নির্ধারিত কিছু নিয়ম কানুন রয়েছে যেগুলো সঠিকভাবে ব্যবহারের মাধ্যমে মানুষের উচ্ছৃঙ্খল এবং বেপরোয়া মনোভাব দূর হয়ে যায়। যেকোনো কাজের মধ্যে ধীরস্থিরতা চলে আসে।

হাদিসে আছে, তাড়াহুড়ো করা শয়তানের কাজ। শুধু তাই নয় ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায়ের মাধ্যমে সমাজের সবার সাথে দেখা সাক্ষাত হয়, সালাম বিনিয়ম হয় যা সমাজকে সঠিকভাবে সাঁজাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

এছাড়াও নামাজের মাঝে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ রয়েছে যার দ্বারা প্রতিটি মানুষ শারীরিকভাবে উপকৃত হতে পারে।

১. নামাজে দাড়িয়ে থাকার উপকারিতা

একজন মানুষ যখন নামাজ আদায়ের উদ্দেশে দাঁড়ায় তখন তার নজর সবসময় সিজদার স্থানে থাকে এতে করে তার মনোযোগ এবং একাগ্রতা বেড়ে যায়। এটি নামাজের স্বাস্থ্য উপকারিতা বলা যেতে পারে।

২. নামাজে রুকু করার উপকারিতা

মুসলমান যখন রুকুতে যায় তখন কোমর এবং মাথা বরাবর থাকে এবং যখন সোজা হয়ে দাঁড়ায় তখন হাঁটু ও কোমরের মাঝে একটি শক্তিশালী ব্যায়াম হয়ে যায় যার ফলে রক্ত চলাচল তুলনামুলকভাবে বৃদ্ধি পায়। রুকু করার মাধ্যমে হাঁটু ব্যথা এবং কোমরের ব্যথা নিরাময় হয়।

শরীরের মধ্যে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করা, হাঁটু এবং কোমরের ব্যাথা নিরাময় হওয়া ইত্যাদি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের স্বাস্থ্য উপকারিতা।

৩. নামাজে সিজদা করার উপকারিতা

নামাজি ব্যক্তি যখন সিজদা করে তখন কপাল এবং নাক মাটিতে লাগায়, এতে মস্তিস্কে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি হয়। মস্তিস্কে রক্ত চলাচল বেড়ে গেলে সৃতিশক্তিও অনেক বৃদ্ধি পায়।

সিজদা থেকে উঠে যখন বসে তখন হাঁটু এবং উরুর প্রসারণ এবং সংকচন ঘটে এতে কোমর এবং হাঁটুর ব্যথার উপশম হয়।

৪. নামাজে উঠা বসার উপকারিতা

নামাজের মধ্যে নামাজি ব্যক্তিকে দাঁড়াতে হয় আবার রুকুতে যেতে হয় তারপর আবার সোজা হয়ে দাঁড়াতে হয় তারপর সিজদাতে যেতে হয় তারপর সিজদার মাঝখানে কিছুক্ষণ বসতে হয় আবার সোজা হয়ে দাঁড়াতে হয় এভাবে শরীরের শক্তিশালী ব্যায়াম হয়ে থাকে। যা বিভিন্ন রোগ হতে রক্ষা করতে পারে।

পরিশেষে বলা যায়, নামাজের অনেক অনেক উপকারিতা রয়েছে। আর উপকার আছে বলেই মহান আল্লাহ তায়ালা প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা ফরজ করে দিয়েছেন। তাই প্রত্যেক মুসলমানের ৫ ওয়াক্ত নামাজ সময়মত আদায় করা উচিৎ।

শুধু নিজেই নামাজ আদায় করলে হবে না বরং অন্যকে নামাজের জন্য উৎসাহিত করতে হবে, নামাজের উপকারিতা, নামাজের শারীরিক উপকারিতা বা নামাজের স্বাস্থ্য উপকারিতা এবং নামাজের বৈজ্ঞানিক উপকারিতা ছাড়াও নামাজের মানসিক উপকারিতার কথা অন্যদের বলতে হবে।

এতে করে নামাজের প্রতি মানুষের আগ্রহ বৃদ্ধি পাবে। মনে রাখবেন, একমাত্র নামাজেই আমাদেরকে জান্নাতে প্রবেশ করাবে। কেননা নামাজ জান্নাতের চাবি।

 

আরও পড়ুন,

 

*লেখাটি ভালো লাগলে আপনার প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করুন*

Check Also

সকালে ঘুম থেকে ওঠার উপকারিতা ভোরে ঘুম থেকে ওঠার উপকারিতা সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠার উপকারিতা কেন সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠবেন? ভোরে ঘুম থেকে ওঠার স্বাস্থ্য উপকারিতা

সকালে ঘুম থেকে ওঠার উপকারিতা কি? ইসলাম কি বলে?

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ১০টি ভালো অভ্যাস এর মধ্যে একটি হচ্ছে সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠা। …

12 comments

  1. I’m really enjoying the design and layout of your site.
    It’s a very easy on the eyes which makes
    it much more pleasant for me to come here
    and visit more often.

  2. Md. Abdullah Al Rafi

    Generally I do not read post on blogs, however I would like to say that this write-up very pressured me to check out and do so!
    Your writing taste has been surprised me. Thank you, very nice
    article.

  3. সুমি আক্তার

    This is a topic that’s close to my heart… Best wishes!
    Where are your contact details though?

  4. Magnificent beat ! I wish to apprentice while you amend your website, how could i subscribe for a
    blog website? The account helped me a acceptable deal.
    I had been tiny bit acquainted of this your broadcast provided bright clear concept

  5. I read this article fully concerning the resemblance of most
    up-to-date and earlier technologies, it’s awesome
    article.

  6. Hello there! I simply wish to give you a huge thumbs up for your great info you’ve got here on this post.

    I will be coming back to your web site for more soon.

  7. Thanks for sharing your info. I truly appreciate your
    efforts and I am waiting for your next post thank you once again.

  8. I love looking through a post that will make men and women think.

    Also, thanks for allowing me to comment!

  9. Greetings! This is my 1st comment here so I just wanted to give
    a quick shout out and tell you I truly enjoy reading your blog posts.
    Can you suggest any other blogs/websites/forums that go over the same topics?
    Thanks for your time!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!